নানক-সাদেক বিরোধ অবসান!

অনেক জল্পনা কল্পনার পর অবসান হল ঢাকা ১৩ আসন ঘিরে চলমান বিরোধ মনোনয়ন কেন্দ্র করে আওয়ামী শিবিরের দুই পক্ষের মদ্ধে চলছিল শীতল দ্বন্দ্বের ইতিমধ্যেই গতকাল সব ভেদাভেদ ভুলে গিয়ে আক সাথে কাজ করার স্বার্থে এক হয়েছেন ঢাকা-১৩ আসনের বর্তমান সাংসদ জাহাঙ্গীর কবির নানক ও ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাদেক খান।

জানা যায় নানক অত্র এলাকার স্থানীয় বাসিন্দা না হয়েও ভাল দাপটের সাথেই দীর্ঘ ২৫ বছর যাবত রাজনীতি করে আসছেন এবার একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঢাকা-১৩ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন সাদেক খান। ঢাকা-১৩ আসন ঘিরে সাদেক খানের রাজনৈতিক প্রভাব দৃশ্যমান নানকের উদ্যোগে আয়োজিত এক মত বিনিময় সভায় নানক সাদেক খানের সাথে একাত্মতা ঘোষণা করেন
সোমবার সন্ধ্যায় রাজধানীর মোহাম্মদপুরের একটি কমিউনিটি সেন্টারে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক মতবিনিময় সভায় সাদেক খানকে সমর্থন জানান। উক্ত সভায় নানক, তার এলাকায় করা বিগত ১০ বছরের উন্নয়ন চিত্র তুলে ধরেন এসময় আবেগঘন পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়, এক পর্যায়ে তিনি কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন কান্নাজড়িত কণ্ঠে নানক বলেন, আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনা এবার নৌকা তুলে দিয়েছেন সাদেক খানের হাতে। তাই সব ভেদাভেদ ভুলে আমাদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। এ দেশকে রক্ষার স্বার্থে, নৌকার স্বার্থে আমাদের এক হতে হবে। কারণ নৌকার বিজয় ছাড়া আমাদের সামনে আর কোনো পথ খোলা নেই।’

সাদেক খান প্রসঙ্গে নানক বলেন, সাদেক খান মাটি ও মানুষের নেতা কর্মীদের সাথে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করেন তিনি দেশনেত্রী শেখ হাসিনা যাকেই মনোনয়ন দিয়েছেন তাকেই যোগ্য কাণ্ডারি বলে মনে করেন তিনি ভবিষ্যতে তিনি সাদেক খানের সাথে কাজ করার প্রত্যয় ব্যাক্ত করেন
অপরদিকে সাদেক খানও নানকের প্রসংসা করে বলেন, নানক তার শ্রদ্ধেয় বড় ভাই তিনি নানককে অনেক সম্মান করেন রাজনীতিতে প্রতিযোগিতা থাকবেই, তাই বলে কারো সম্মান ম্লান হবে না বলে মনে করেন তিনি

অনুষ্ঠানে সাদেক খান বলেন, আমার বড় ভাই (নানক) যে বক্তব্য সবার সামনে দিয়েছেন, আমাকে বুকে তুলে নিয়েছেন, এর জন্য আমি তাঁকে স্যালুট জানাই।’ তিনি বলেন, ‘কেউ বলতে পারবে না আমি তাঁর (নানক) সঙ্গে কোনো দিন বেয়াদবি করেছি। আমার বড় ভাই যে বক্তব্য আজকে রেখেছেন, আমি তাঁকে সবার সামনে স্যালুট জানাই।’


মোহাম্মদপুর, আদাবর ও শেরেবাংলা নগর থানা আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনের এবং ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। তারা স্লোগানে স্লোগানে সভার সময়টুকু মুখরিত করে রাখেন নেতাকর্মীরা

Share this:

 
Copyright © Geek Bangladesh. Designed by OddThemes